শিরোনাম

12 Apr 2021 - 09:47:49 am। লগিন

Default Ad Banner

৭০ জনের সংস্পর্শে আসা সেই ব্যক্তিদের খুঁজে বের করা হচ্ছে: স্বাস্থ্য অধিদফতর

Published on Saturday, April 4, 2020 at 6:34 pm 147 Views

এমসি ডেস্ক:   দেশে নতুন করে আরও ৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। ফলে দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭০ জন। এই ৭০ জনের সংস্পর্শে কারা এসেছেন তাদের খুঁজে বের করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতর।

শনিবার (৪ এপ্রিল) কোভিড-১৯ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের নিয়মিত অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

দেশে নতুন করে আরও ৯ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার পর সীমিত পর্যায়ে কমিউনিটি সংক্রমণ হচ্ছে বলে স্বীকার করেছে স্বাস্থ্য অধিদফতর। নতুন করে আক্রান্তদের সবাইকে ‘সোর্স অব ইনফেকশন’ অভিহিত করেন তিনি। এসময় পরীক্ষার সংখ্যা বেশি নয় জানিয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বসে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করার কথা জানান তিনি।

তিনি বলেন, ‘আমরা সকলের কন্টাক্ট ট্রেসিং করতে পেরেছি। যখনই কোনও টেস্ট পজিটিভ হয়, সঙ্গে সঙ্গে তার কন্টাক্ট ট্রেসিংয়ের কাজ শুরু করি।’

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক জানান, নতুন করে শনাক্ত হওয়া ৯ জনসহ দেশে করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এখন পর্যন্ত মোট ৭০ জন। এই ৭০ জনের সংস্পর্শে কারা কারা এসেছিলেন (কন্টাক্ট ট্রেসিং) তাদের খুঁজে বের করা হয়েছে।

তাহলে কি কমিউনিটি ট্রান্সমিশন হচ্ছে? এমন প্রশ্নের জবাবে অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘যারা বিদেশ থেকে এসেছেন, প্রথমে তাদের মাধ্যমে তাদের পরিবারে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। সেসব সদস্যের সঙ্গে যারা ওঠা-বসা করেন তাদের মধ্যেও সংক্রমণ ছড়িয়েছে। উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, যেমন মিরপুরের ঘটনা। সেখানে তারা নামাজ পড়তেন একসঙ্গে, এলাকার ভেতরে তারা একসঙ্গে হাঁটাহাঁটি করতেন। এরা কিন্তু তাদের পরিবারের সদস্য ছিলেন না। তবে এটা ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ, এটাকে কমিউনিটি সংক্রমণ বলাই যায়।’

তিনি স্বীকার করেন, ‘খন পর্যন্ত পরীক্ষার সংখ্যা অনেক বেশি নয়। এটা এখনও সীমিত পর্যায়। তবে অবশ্যই কমিউনিটি সংক্রমণ আমরা বলতে পারি।তাই পরীক্ষার সংখ্যা আরও বাড়িয়ে দেওয়া হবে। বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে বসে পরবর্তী পদক্ষেপ কী হওয়া উচিত, সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

জনগণকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘একান্ত প্রয়োজন না হলে ঘরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছি সবাইকে। সরকার থেকে যত ব্যবস্থাই নেওয়া হোক না কেন, মানুষ যদি নিজে তার সঠিক ভূমিকা পালন না করে তাহলে কিন্তু করোনার এই সংকট থেকে সহজে মুক্তি পাওয়া সহজ নয়।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *