শিরোনাম

15 Apr 2021 - 01:51:19 am। লগিন

Default Ad Banner

সড়ক দূর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজন নিহত

Published on Saturday, January 18, 2020 at 3:58 pm 87 Views
এমসি ডেস্কঃ প্রাইভেটকার দুর্ঘটনায় যশোরে একই পরিবারের তিন নারী ঘটনাস্থলেই মারা গেছেন। আহত হয়েছেন এক শিশুসহ আরও তিনজন। নিহতদের মধ্যে মেডিকেলের  ছাত্রী তনিমা ইয়াসমিন পিয়াসার বিবাহোত্তর সংবর্ধনা ছিল আগামী ২৩ জানুয়ারি। আনুষ্ঠানিকভাবে শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার আগেই লাশ হলেন তিনি।

নিহতরা হলেন, যশোর শহরের ঢাকারোড মোল্লাপাড়া বিসিএমসি কলেজ এলাকার ইয়াসিন আলীর মেয়ে তানজিলা ইয়াসমিন (২৮), তনিমা ইয়াসমিন পিয়াসা (২৫) ও পিয়াসার খালাত ভাই আরএন রোড এলাকার মঞ্জুর হোসেনের স্ত্রী আফরোজা তাবাস্সুম তিথী (২৬)।

আহত হয়েছেন আফরোজা তাবাস্সুম তিথীর মেয়ে মানিজুর (৩), শহরের লোন অফিসপাড়ার শহিদুল ইসলামের ছেলে মটর পার্টস ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম জ্যোতি (২৮), মৃত আবুল কাশেমের ছেলে হৃদয় (২৮)ও শেখহাটির শাহিন হোসেন (২৩)।

শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা থেকে ১টার মধ্যে শহরের শহীদ মশিয়ূর রহমান সড়কের পাশে (আকিজ গলি) একটি প্রাচীর ও স্ট্রিট লাইটপোস্টে তাদের বহনকারী মাইক্রোবাসটির ধাক্কা লাগে।

ইয়াসিন আলীর ভাই, নিহত দু’বোনের চাচা আব্দুল কাদের জানিয়েছেন, আগামী ২৩ জানুয়ারি তার ভাতিজি পিয়াসার বিবাহোত্তর সংবর্ধনার কথা ছিল।

মঞ্জুর হোসেনের মামা শাহিনুর রহমান ঠাণ্ডু জানিয়েছেন, শহরের লোনঅফিসপাড়া এলাকার ব্যবসায়ী শফিকুল ইসলাম জ্যোতির সঙ্গে আদদ্বীন সখিনা মেডিক্যালের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী তনিমা ইয়াসমিন পিয়াসার দেড় বছর আগে বিয়ে হয়। আগামী ২৩ জানুয়ারি তারা আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের তুলে নেওয়ার কথা। সে লক্ষ্যে জ্যোতির বাড়িতে আলোকসজ্জা করা হয়।

পিয়াসা রাতে ফোন করে জ্যোতিকে জানান- তারা আলোকসজ্জা দেখবেন এবং শহর ঘুরবেন। এ কারণে শুক্রবার রাত ১০টার দিকে জ্যোতি তার নিজস্ব মাইক্রেবাসটি নিয়ে বের হন।

গাড়িতে পিয়াসার বোন তানজিলা, খালাতভাবি আফরোজা তাবাস্সুম তিথী, তার মেয়ে মানিজুর এবং জ্যোতির দু’বন্ধু হৃদয় ও শাহিন ছিলেন। তারা রাতে আলোকসজ্জা দেখে শহরে তাদের স্বজনদের দাওয়াত দিয়ে রাত সাড়ে ১২টার দিকে শহরের পালবাড়ি এলাকা থেকে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। ফেরার পথে রাত সাড়ে ১২টা থেকে ১টার মধ্যে যশোর শহরের পুরাতন কসবা শহীদ মশিয়ূর রহমান সড়কের (আকিজের গলি) পাশে থাকা একটি বিল্ডিংয়ের প্রাচীর ও স্ট্রিট লাইটপোস্টে সজোরে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই তিনজন মারা যান। গাড়িতে থাকা অন্যরা কমবেশি আহত হন।

ঘটনার পরপরই পুলিশ ‘৯৯৯’ এ সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তাদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

যশোর কোতয়ালি থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) তাসমীম আলম জানান, সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে হতাহতদের উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের ব্রাদার (সিনিয়র নার্স) মোফাজ্জেল হোসেন জরুরি বিভাগের ডাক্তার কাজল মল্লিকের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তিনজন মারা যান। আহত শিশুটি আশঙ্কামুক্ত।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *