27 Oct 2021 - 09:58:07 am। লগিন

Default Ad Banner

সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার চুরির ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা

Published on Wednesday, August 21, 2019 at 2:26 pm 325 Views

এমসি ডেস্কঃ নীলফামারীর সৈয়দপুর বিমানবন্দর থেকে চুরি যাওয়া ২টি বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমা উদ্ধার করা হয়েছে। বিমানবন্দর ম্যানেজার সুষান্ত দত্ত নিজেই শহরের শহীদ ডাঃ জিকরুল হক রোডস্থ একটি ফুল দোকান থেকে এগুলো উদ্ধার করেন বলে জানা গেছে।
জানা যায়, সৈয়দপুর বিমানবন্দর আন্তর্জাতিককরণ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিমানবন্দর এলাকার বিদ্যুৎ সরবরাহ বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে নতুন ৯টি ট্রান্সফরমার আনা হয়। এগুলো স্থাপনের জন্য বিমানবন্দর বিদ্যুৎ সরবরাহ বিভাগের অফিসের সামনে রাখা হয়। কিন্তু গত ঈদুল আজহার এক সপ্তাহ পূর্বে এই ট্রান্সফরমাগুলোর মধ্যে ২টি উধাও হয়ে যায় এখান থেকে। অনেক খোঁজা খুজির পরও সেগুলোর কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছিল না। এগুলো বিদ্যুৎ বিভাগের ই/এম শাখার ইঞ্জিন ড্রাইভার মোঃ ইব্রাহিম খলিলের দায়িত্বে ছিল। তিনিসহ বিমানবন্দর বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাও কেউই এ ব্যাপারে কোন তথ্য দিতে পারছিলেন না।
এ ব্যাপারে কোন প্রকার আইনী পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। প্রশাসন বা আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি অবগত করা হয়নি। বরং ইব্রাহিম খলিল নিজের দায়িত্ব এড়িয়ে ট্রান্সফরমা চুরির সাথে সৈয়দপুর বিদ্যুৎ বিভাগের স্টোর ইঞ্জিনিয়ার শরিফুল ইসলামের উপর চাপিয়ে দিয়ে দোষারোপ করে চলেছেন। অথচ শরিফুল ইসলাম সম্পূর্ণ মালামাল বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে নিয়মতান্ত্রিকভাবে বুঝিয়ে দেন।
এমতাবস্থায় বিমানবন্দর ম্যানেজার সুষান্ত দত্ত নিজেই উদ্যোগী হয়ে গোপনে তদন্তের মাধ্যমে সৈয়দপুর শহরের শহীদ ডাঃ জিকরুল হক সড়কের একটি ফুল দোকান থেকে ট্রান্সফরমার দু’টি উদ্ধার করেন গত ৮ আগস্ট বৃহস্পতিবার। এর প্রেক্ষিতে চুরির ঘটনা তদন্তে দুই সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। সদস্য দুজন হচ্ছেন- বিমানবন্দর বিদ্যুৎ বিভাগের কন্ট্রোলার মজিবুল ও ইসিআর এর রবিউল ইসলাম। ইতোমধ্যে ইব্রাহিম খলিল ও তার সহকারী ওলি’র বিরুদ্ধে প্রাথমিকভাবে তদন্ত কার্যক্রম চলছে।
তারপরও এ ব্যাপারে আইনগত কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। কারণ এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্তরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকার পদক্ষেপ নিতে চাননা কর্তৃপক্ষ। এই প্রভাবশালীরা দীর্ঘদিন থেকে বিমানবন্দর বিদ্যুৎ অফিস কুক্ষিগত করে রেখে নানা প্রকার দূর্নীতি ও অনিয়ম করে যাচ্ছেন। কিন্তু তারপরও এদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়না। একটি সূত্রের অভিযোগ বিষয়টি ধামাচাপা দিতেই প্রশাসনকে জানানো হয়নি।
এ ব্যাপারে সৈয়দপুর বিমানবন্দর ম্যানেজার সুষান্ত দত্ত সাথে কথা হলে তিনি জানান, আপনি এ খবর কোথায় থেকে শুনলেন? এটা একটি ছোট্ট ব্যাপার। বিভাগীয়ভাবেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। দুইজনকে দিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তবে তদন্তের সাপেক্ষে এ মূহুর্তে এর বেশি আর কিছু বলা যাবেনা।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *