শিরোনাম

14 May 2021 - 11:23:17 pm। লগিন

Default Ad Banner

মহাকাশে প্রথম আধা-মানব রোবট পাঠালো রাশিয়া

Published on Wednesday, August 28, 2019 at 12:42 pm 164 Views

এমসি ডেস্কঃ এর আগে ২০১৩ সালে জাপান মহাকাশে রোবট পাঠালেন তা পুরোপুরি সফল হতে পারেনি। কিন্তু এবার মহাকাশে প্রথম মানবিক গুন সম্পন্ন রোবট পাঠালো রাশিয়া। যা বলা যায় আধ-মানব। সফল সেই রোবটের বিজ্ঞানীরা নাম দিয়েছেন ‘ফেদর’। দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টার পর মঙ্গলবার সফলভাবে ন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে আইএসএস পৌঁছেছে।

নাসা জানিয়েছেন, মহাকাশকেন্দ্রে ১০ দিন অবস্থান করে নভোচারীদের সহযোগী হিসেবে কাজ শিখবে সে। ফেডর মানুষের উচ্চতার সমান এবং মানবীয় গুণাবলি রয়েছে তার। ফেডরের মানুষের মতো চলার ও কাজ করার ক্ষমতাও রয়েছে। ফেদরের ইনস্টাগ্রাম ও টুইটার অ্যাকাউন্টও রয়েছে। সেখানে তার সম্পর্কে বলা হয়, ফেদর সম্প্রতি নতুন নতুন কলা-কৌশল আয়ত্ত করছে। যেমন- পানির বোতল খোলা। মহাকাশ কেন্দ্রে স্বল্প মাধ্যাকর্ষণ বলের মধ্যে সে এসব কলা-কৌশল চর্চা করবে।শুধু তা-ই নয়, সুয়োজ রকেটটি পৃথিবীর কক্ষপথে পৌঁছানোর পর ফেদরের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে জানানো হয় যে, পরিকল্পনা অনুযায়ী উড্ডয়নের পর প্রথম ধাপের পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার কাজাখস্থানের দক্ষিণাঞ্চলে রাশিয়ার একটি মহাকাশ কেন্দ্র থেকে সয়ুজ এমএস-১৪ নামের একটি মহাকাশযান উৎক্ষেপণ করা হয়। মহাকাশ স্টেশনে নভোচারীদের সহযোগিতা করতে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এটি আইএসএসে অবস্থান করার কথা রয়েছে। যদিও শনিবার যানটির মহাকাশ স্টেশনে ভিড়ার চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় রাশিয়ার এ মহাকাশ কর্মসূচির ভবিষ্যত নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছিল। শনিবার নাসা জানায়, যানটি মহাকাশ স্টেশনে তার লক্ষ্যস্থলে যুক্ত হতে ব্যর্থ হয়েছিল এবং কক্ষপথ সংক্রান্ত জটিলতা থেকে নিরাপদ দূরত্বে সরে গিয়েছিল। রাশিয়ার এ মহাকাশযানের নিয়ন্ত্রণকারীরা পরবর্তী পদক্ষেপ মূল্যায়ন করে ফের প্রচেষ্টা চালান এবং এক্ষেত্রে তারা সফল হন।

সাধারণত পাইলটদের মাধ্যমেই সুয়োজ রকেটের উড্ডয়ন কাজ পরিচালিত হয়। কিন্তু এই প্রথম জরুরি উদ্ধার অভিযান বিষয়ক পরীক্ষা চালাতে পাইলটবিহীন সুয়োজে করে ‘আধা-মানব’কে মহাকাশে পাঠানো হলো। বরং বিশেষভাবে বানানো পাইলটের সিটে ফেদরকেই বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। আর তার হাতে শোভা পাচ্ছে রাশিয়ার একটি পতাকা।

এর আগে ২০১১ সালে ‘রোবোনাট-২’ নামে মানব আকৃতির একটি রোবটকে মহাকাশে পাঠিয়েছিল নাসা। রোবোনাটও বিভিন্ন ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে সক্ষম ছিল। যদিও পরবর্তীতে ২০১৮ সালে যান্ত্রিক জটিলতার কারণে রোবটটিকে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা হয়। এছাড়া ২০১৩ সালে মহাকাশকেন্দ্রে ‘কিরোবো’ নামে আরেকটি ছোটো আকৃতির রোবট পাঠিয়েছিল জাপান। সেটি জাপানি ভাষায় কথোপকথনে সক্ষম ছিল।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *