28 Oct 2021 - 02:36:36 am। লগিন

Default Ad Banner

বিরামপুরে সক্রিয় ‘গাছ খেকো’ চক্র

Published on Saturday, October 19, 2019 at 7:32 pm 232 Views

এমসি ডেস্কঃ দিনাজপুর বন বিভাগের চরকাই রেঞ্জের গাছ নিজের দাবি করে কেটে নিয়ে যাচ্ছে একটি চক্র। বনভূমির মালিকানা দাবি করা মামলায় তারা কয়েক দফা পরাজিত হয়ে এখন 'গায়ের জোরে' কেটে নিয়ে যাচ্ছে পরিপক্ক পুরনো গাছ। শনিবার বেশ কিছু কাটা গাছ উদ্ধার করেছে বন বিভাগ।

চরকাই (বিরামপুর) রেঞ্জ কর্মকর্তা নিশিকান্ত মালাকার জানান, গাছ কাটার ব্যাপারে মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে। বিশ্বনাথপুর মৌজায় বন বিভাগের ৮.৬০ একর জমিতে প্রায় ৩০ বছর আগে দু’শতাধিক মিনজিরি গাছ রোপন করা হয়। বর্তমানে সকল গাছ পরিপক্ক কাঠে পরিনত হয়েছে। এ আবস্থায় শুক্রবার বিশ্বনাথপুর গ্রামের নুর ইসলাম ও নুরু মেম্বার গং বন বিভাগের জমিকে নিজেদের দাবি করে গাছ কাটতে শুরু করেন। এসময় বন বিভাগের বাগান মালি নাছির উদ্দিন বাধা দিতে গেলে তাকে লাঠিসোটা নিয়ে ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে দেন। রাতে তারা বেশির ভাগ গাছ ট্রাকযোগে নিয়ে গেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বন বিভাগের জায়গা নিজেদের দাবি করে  একটি চক্র মূলত গাছ লোপাট করতে চায়। শুক্রবার তারা ১৮৮টি মিনজিরি গাছ কেটে নিয়েছে। এ বিষয়ে বিরামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন চরকাই (বিরামপুর) রেঞ্জ কর্মকর্তা নিশিকান্ত মালাকার। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। শনিবার বিকেলে বন বিভাগের লোকজন কিছু গাছ জব্দ করেছে।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান বলেন, ' জায়গাটি নিয়ে মোকদ্দমায় তিনবার বন বিভাগ রায় পেয়েছে। সম্প্রতি একটি পক্ষ জমিকে নিজের বলে দাবি করলেও তার স্বপক্ষে কোন কাগজ দেখাননি।'

স্থানীয় মুকুন্দপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম গাছ কাটার অবগত হয়েছেন বলে জানান। এদিকে অভিযুক্ত  নুর ইসলাম ও নুরু মেম্বারের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাদের ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *