16 Sep 2021 - 04:47:05 pm। লগিন

Default Ad Banner

প্রধানমন্ত্রী: ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার করবেন না

Published on Tuesday, December 15, 2020 at 9:44 pm 59 Views

এমসি ডেস্ক :  ১৯৭১ সালের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের পরাজিত শক্তির দোসররা দেশকে আবারও ৫০ বছর আগের অবস্থায় ফিরে নিয়ে যাওয়ার অপচেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি এ কথা বলেন।

pm hasina victory dayপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধের পরাজিত শক্তির দোসররা রাজনৈতিক মদদে সরকারকে ভ্রুকুটি দেখানোর ধৃষ্টতা দেখাচ্ছে। তারা মিথ্যা, বানোয়াট ও মনগড়া বক্তব্য দিয়ে সাধারণ ধর্মপ্রাণ মুসলমানদের বিভ্রান্ত করতে মাঠে নেমেছে।

ধর্মকে রাজনীতির হাতিয়ার না করতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালেই বলেছিলেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কিন্তু আজকে ধর্মকে ব্যবহার করে এই অপশক্তি সমাজে অশান্তি সৃষ্টি করতে চাচ্ছে।

জাতির পিতা একজন খাঁটি মুসলমান হওয়ার পাশাপাশি ধর্মীয় আচারাদি নিষ্ঠার সঙ্গে প্রতিপালন করতেন জানিয়ে তার কন্যা ও সরকার প্রধান বলেন, সংবিধান রচনা করার সময় বঙ্গবন্ধু মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটিয়ে বাঙালি জাতীয়তাবাদ, ধর্মনিরপেক্ষতা, গণতন্ত্র ও সমাজতন্ত্র- এই চারটি মৌলিক বিষয়কে রাষ্ট্র পরিচালনার মূলনীতি হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন।

bd constituation logo1

কিন্তু দুঃখের বিষয়, ৭৫ পরবর্তী মুক্তিযুদ্ধের আদর্শবিরোধী সরকারগুলো স্বাধীনতার মাধ্যমে অর্জিত মূল্যবোধকে জলাঞ্জলি দিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় নিজেদের আসন চিরস্থায়ী করার পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সামরিক জান্তা সঙ্গীদের খোঁচায় সংবিধানকে ক্ষতবিক্ষত করেছে। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ধারাবাহিক অপপ্রচার চালিয়ে ইতিহাস বিকৃত করেছে। আওয়ামী লীগ এবং বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধেও কালিমা লেপনের চেষ্টা করেছে তারা।’

তিনি বলেন, এই দেশ লালন শাহ, রবীন্দ্রনাথ, কাজী নজরুল, জীবনানন্দের। এই দেশ শাহজালাল, শাহ পরান, শাহ মকদুম, খানজাহান আলীর। এই দেশ সাড়ে ১৬ কোটি বাঙালির। এই দেশ শেখ মুজিবের বাংলাদেশ। তাই এখানে ধর্মের নামে কোনো ধরনের বিভেদ-বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে দেয়া হবে না। ধর্মীয় মূল্যবোধ সমুন্নত রেখেই এ দেশকে প্রগতি, অগ্রগতি এবং উন্নয়নের পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *