শিরোনাম

13 May 2021 - 08:06:10 am। লগিন

Default Ad Banner

‘পৃথিবীর ফুসফুসে’ অগ্নিকাণ্ড: স্যাটেলাইটের ছবিতে ফুটে উঠেছে ভয়াবহতা

Published on Friday, August 30, 2019 at 7:34 pm 173 Views

এমসি ডেস্কঃ গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দাবানলে জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস খ্যাত ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় রেইন ফরেস্ট আমাজন। এই দাবানলে প্রতি মিনিটে পুড়ে ছাই হয়ে যাচ্ছে তিনটি ফুটবল মাঠের সমান আয়তনের বন। সারা পৃথিবীর গণমাধ্যম থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক মহল যখন এ নিয়ে চিন্তিত তখন আরও একবার এই রেইন ফরেস্টের অগ্নিকাণ্ডের ভয়াবহতা ফুটে উঠলো মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা কর্তৃক প্রকাশিত স্যাটেলাইট ছবিতে।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে তোলা ওইসব ছবিতে স্পষ্ট দেখা যায়, দাবানলের কারণে ওই অঞ্চলের ওপর ঘন কালো ধোঁয়ার কুণ্ডলি সৃষ্টি হয়েছে এবং সেখানকার তাপমাত্রা বেড়ে ২২০ ডিগ্রি পর্যন্ত পৌঁছেছে।

নাসার এক বিবৃতিতে জানানো হয়, গত ২৩ আগস্ট সংস্থাটির ইকোসিস্টেম স্পেসর্বোন থার্মাল রেডিওমিটার এক্সপেরিমেন্ট (ইকোস্ট্রেস) মহাকাশ থেকে এই ছবিগুলো তোলে। স্যাটেলাইটের মাধ্যমে আমাজনের একটি স্থানের বিভিন্ন সময়ের ছবি তুলে বিজ্ঞানীরা সেগুলো বিশ্লেষণ এবং পর্যবেক্ষণ করছেন। ইকোস্ট্রেসের তোলা এসব ছবির মাধ্যমে আমাজনের বর্তমান ভয়াবহতা খুব ভালো করে পর্যক্ষণ করা সম্ভব বলে জানিয়েছে নাসা।

এর আগে স্যাটেলাইট থেকে আমাজনের অগ্নিকাণ্ডের ছবি তুলে গবেষণা করে ব্রাজিলের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ স্পেস রিসার্চ (ইমপে)। গবেষণার পর তারা জানায়, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত এই রেইন ফরেস্টে ৭২,৮০০টি আগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

তখন আবহাওয়াবিদ জোসেলিয়া পেগোরিম বলেছিলেন, মাহাকাশের স্যাটেলাইট থেকে তোলা ছবিতে দেখা গেছে, ব্রাজিলের অ্যার্কে ও রোনডোনিয়া রাজ্য এবং প্রতিবেশি দেশ বলিভিয়া ও প্যারাগুয়ের অবস্থিত আমাজনের বিশাল আগুন থেকে ধোঁয়ার উৎপত্তি হয়েছে এবং সেটা দক্ষিণ দিকে ভেসে আসছে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ আগস্ট থেকে ভয়াবহ দাবনলের সৃষ্টি হয়েছে ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় এই রেইন ফরেস্টে। এর মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবারের মধ্যে নতুন করে আরও এক হাজার ২০০টি স্থানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। বনের বিভিন্ন স্থানে সৃষ্টি হয় ভয়াবহ আগুনের কুণ্ডলী। নতুন করে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কেন্দ্রীয় সরকারের শরণাপন্ন হয়েছে দেশটির পারা, রোরাইমা, রন্ডোনিয়া, টোকানটিন্স, ম্যাটো গ্রোসো এবং একর রাজ্য। দাবনল নিয়ন্ত্রণে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে সামরিক সহায়তা চেয়েছে এই ছয়টি রাজ্য। ইতোমধ্যে সামরিক বাহিনী রন্ডোনিয়া প্রদেশে বিমান থেকে পানি ঢালার কাজ শুরু করেছে।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *