20 Sep 2021 - 11:57:00 am। লগিন

Default Ad Banner

ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

Published on Thursday, April 18, 2019 at 9:29 am 238 Views

এমসি ডেস্ক: চাঁপাইনবাবগঞ্জে আয়েশা খাতুন নামে এক তরুণীতে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে করা মামলায় পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে চাঁপাইনবাবগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক মো. শওকত আলী এই আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- শ্রী নয়ন
কর্মকার রবিদাস, শ্রী নিতাই চন্দ্র রবিদাস, শ্রী প্রশান্ত রবিদাস, শ্রী
সুভাষ দাস ও শ্রী প্রশান্ত রবিদাস। সবার বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চরবাগডাঙ্গা ইউনিয়নে।

এছাড়া ঘটনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা না থাকায় তিনজন বেকসুর খালাস পান। তারা হলেন শ্রী কৃষ্ণ, আব্দুল রহিম এবং সোহাগী বেগম।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৩
জুন সন্ধ্যার পর মামার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার
কালিনগর বাবলাবোনা এলাকার মফিজুল ইসলামের মেয়ে আয়েশা খাতুন। পরদিন সদর
উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নের মহাসড়কের পাশের একটি ডোবার পানিতে ভাসমান
অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় আয়েশার পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো
মামলা না করলে সদর মডেল থানার এসআই শামীম আকতার বাদী হয়ে ময়নাতদন্তের
রিপোর্টের ভিত্তিতে কয়েকজনকে আসামি করে ২০১৫ সালের ৯ আগস্ট একটি মামলা
করেন। মামলায় কারো নাম উল্লেখ করা হয়নি।

তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ১৪ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ওসি (তদন্ত) সরোয়ার রহমান।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পাবলিক
প্রসিকিউটর আঞ্জুমান আরা জানান, ২০১৫ সালের ১৩ জুন প্রেমের প্রলোভন দেখিয়ে
ধর্ষণ করে শ্বাসরোধ করে ডোবায় আয়েশার লাশ ফেলে রাখা হয়। পরে সেখান থেকে
আয়েশার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এ ঘটনায় করা মামলায় ১৪ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও
যুক্তিতর্ক শেষে বিচারক পাঁচ আসামির মৃত্যুদণ্ড এবং প্রত্যেকের এক লাখ
টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়। রায় ঘোষণার সময় দুই আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
বাকিরা পলাতক।

রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে অবিলম্বে সাজা
কার্যকরের দাবি জানিয়েছেন ওই তরুণীর পরিবার। অন্যদিকে রায়ে অসন্তোষ জানিয়ে
উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছেন আসামিপক্ষের আইনজীবী।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *