16 Sep 2021 - 05:49:29 pm। লগিন

Default Ad Banner

টিআরপি নির্ধারণে কারিগরি সহায়তায় প্রস্তুত বিএসসিএল

Published on Monday, February 1, 2021 at 9:36 pm 64 Views

এমসি ডেস্ক :  তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, টিআরপি নির্ধারণ এবং বিদেশি চ্যানেলের ক্লিনফিড পেতে কারিগরি সহায়তায় দিতে প্রস্তুত রয়েছে বাংলাদেশ স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিএল)।

information minister hasan mahmud 9ড. হাছান মাহমুদ

রাজধানীর বাংলা মোটরে কাজী নজরুল ইসলাম এভিনিউয়ে বিএসসিএলের কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে আজ সোমবার সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএসসিএলের চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, পরিচালক অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ হোসেন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মিজান-উল-আলমসহ সংস্থাটির কর্মকর্তারা।

তথ্যমন্ত্রী জানান, আমাদের দেশে একটি বা দুটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান টিআরপি নির্ধারণ করে। তারা তাদের প্রক্রিয়ায় অনেক নমুনা সংগ্রহের কথা বলে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কোম্পানি জানিয়েছে, তারা মাত্র ১৬৪টি নমুনা সংগ্রহ করে সেখান থেকে টিআরপি দেয়, সেটা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়।

bangabandhu satellite 2বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১, ফাইল ছবি

তথ্যমন্ত্রী জানান, বাংলাদেশে টিআরপির প্রকৃত চিত্র পেতে হলে জনসংখ্যার নিরিখে কমপক্ষে ১০ হাজার নমুনা চলমানভাবে নিয়ে কাজ করতে হবে। অন্যথায় প্রকৃত পাওয়া যাবে না। ভারতে কন্টিনিউয়াসলি ৭০ থেকে ৮০ হাজার নমুনা কালেকশন করা হয় এবং সেভাবেই টিআরপি দেওয়া হয়। দেশটিতে সরকারের আওতাভুক্ত একটি প্রতিষ্ঠানের অধীনে কয়েকটি সমন্বিত সংস্থার মাধ্যমে টিআরপি নির্ধারণ করা হয়।

তিনি বলেন, বর্তমানে আমাদের দেশে যে টিআরপি দেওয়া হচ্ছে, তা অবৈজ্ঞানিক ও ভৌতিক পদ্ধতিতে দেওয়া হয়। সে বিষয়ে আমরা স্বচ্ছতা আনার চেষ্টা করছি। এ নিয়ে ইতোমধ্যে একটা কমিটি করা হয়েছে। বেশ কয়েকটা বৈঠকও করেছে কমিটি। এ ব্যাপারে খুব সহসা আমরা একটা সমাধানে পৌঁছাবো। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট কোম্পানি জানিয়েছে যে, তারা এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ টেকনিক্যাল সার্পোট দিতে প্রস্তুত আছে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, কন্টিনিউয়াসলি ১০ হাজার স্যাম্পল কীভাবে কালেকশন করা যায়, সেই কারিগরি সহায়তা দিতে তাদের যে প্রস্তুতি, সেটা আমাদের জন্য অত্যন্ত আনন্দের খবর। সুতরাং আমরা আশা করছি যে, এ ব্যাপারে খুব সহসা একটা সমাধানে পৌঁছাতে পারবো।

এ সময় বিদেশি চ্যানেলের ক্লিনফিড বাস্তবায়নের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, দেশের আইন অনুযায়ী বিদেশি চ্যানেলগুলো কোনো ধরনের বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারে না, সেটা আপনারা জানেন। বাংলাদেশি বিজ্ঞাপন বিদেশি চ্যানেলের মাধ্যমে প্রদর্শন করা আমরা বন্ধ করেছি। তবে বিদেশি পণ্যের বিজ্ঞাপন এখনো প্রদর্শিত হচ্ছে। সেটাকেও কিন্তু আইন অনুমোদন করে না। বিষয়টি নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরে কাজ চলছে।

বিএসসিএল আজ জানালো, প্রয়োজনে তারা ক্লিনফিড তৈরি করে দিতে পারবে। যদিও যারা লাইসেন্স নিয়েছে, এ দায়িত্ব তাদেরই। যারা বাংলাদেশে প্রদর্শনের জন্য লাইসেন্স নিয়েছে, সংশ্লিষ্ট সেই সব চ্যানেলের দায়িত্ব হচ্ছে- এ দেশের বিদ্যমান আইন অনুসরণ করে ক্লিনফিড পাঠানো বা ক্লিনফিড সম্প্রচারের ব্যবস্থা করা, বলেন তথ্যমন্ত্রী।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আইন অনুযায়ী সব বিদেশি চ্যানেলে ক্লিনফিড চললে শুধু যে আমাদের টেলিভিশন শিল্পই উপকৃত হবে তা নয়, বরং পত্রপত্রিকা থেকে শুরু করে আমাদের পুরো গণমাধ্যমের সবাই উপকৃত হবে।

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশের সবগুলো স্যাটেলাইট চ্যানেল ২০১৯ সালের ২ অক্টোবর থেকে বিদেশি স্যাটেলাইটের স্লট ভাড়ার পরিবর্তে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট ব্যবহার করছে। আমাদের যে নিজস্ব স্যাটেলাইট আছে, এটি আমাদের গর্বের বিষয়। বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকে বাংলাদেশের বিজয়কেতন দেশের পতাকা-সম্বলিত বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে উড়ছে। টেলি-মেডিসিন, টেলি-এডুকেশন, ইন্টারনেট সেবাসহ আমাদের গণমাধ্যমের উন্নয়নের স্বার্থে আরো অনেক ধরনের সুযোগ সুবিধা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে আমাদের নিজস্ব স্যাটেলাইট।

টেলিভিশন সাংবাদিকদের বেতনভাতা নিয়মিতকরণ সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারে আমরা কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে। ফলে টেলিভিশনগুলো আগের চেয়ে ভালো অবস্থায় আছে। সুতরাং আমার অনুরোধ থাকবে, সবাই যেন বেতনভাতা সঠিকভাবে পরিশোধ করেন। খুব সহসা গণমাধ্যমকর্মী আইন পার্লামেন্টে নিয়ে যেতে পারবো বলে আমরা আশা করছি। এটি যখন আইনে পরিণত হবে, তখন সবার আইনি সুরক্ষা নিশ্চিত হবে।

তথ্যমন্ত্রীর পিতা আলহাজ্ব নুরুচ্ছফা তালুকদারের ১০ম মৃত্যুবার্ষিকী

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের পিতা মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, বৃহত্তর চট্টগ্রাম আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এবং আলহাজ্ব এডভোকেট নুরুচ্ছফা তালুকদারের ১০ম মৃত্যুবার্ষিকী আগামী মঙ্গলবার (৩ ফেব্রুয়ারি)।

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ার সুখবিলাস উচ্চ বিদ্যালয়ের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন শিক্ষানুরাগী এই সমাজসেবক। মরহুমের পরিবারের পক্ষ থেকে তার আত্মার শান্তি কামনা করে তথ্যমন্ত্রীর চট্টগ্রাম শহরস্থ বাসভবনের পাশে অবস্থিত মৌসুমী আবাসিক এলাকার আলিফ মিম জামে মসজিদ, চট্টগ্রাম কোর্টবিল্ডিং জামে মসজিদ এবং রাঙ্গুনিয়ায় নিজ বাসভবনে কুরআন খতম ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

মরহুমের আত্মার মাগফিরাতের জন্য সকল আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের কাছে তার পরিবারের পক্ষ থেকে দোয়া চাওয়া হয়েছে।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *