28 Oct 2021 - 12:39:52 am। লগিন

Default Ad Banner

জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান

Published on Thursday, August 15, 2019 at 7:55 am 326 Views


কৈলাশ প্রসাদ গুপ্ত: অবিসংবাদিত নেতা জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। অবিসংবাদিত অর্থ যে বিষয়ে কোন বিতর্ক নেই।
অনেকে উদ্দেশ্য প্রণোদিত হয়ে জাতীর পিতাকে বিতর্কিত করার অপচেষ্টা করে।
সারা বিশ্বের মুসলমান জাতীর পিতা হযরত ইব্রাহীম খলিল (আঃ)। তিনি মুসলমানকে মুসলমান জাতী হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করেন এবং মুসলমান হিসেবে অন্যান্য বৈশিষ্ট্য ও গুণাবলীর প্রতিষ্ঠা করেন। তিনিই মুসলমান জাতীর নামকরন করেন। তাই তাঁকে মুসলমান জাতীর পিতা বলা হয়।
১৯৪৭ সালে ১৪ আগস্ট মুসলমানদের জন্য পাক-পবিত্র স্থান পাকিস্তান নামক রাষ্ট্রের জন্ম হয়। পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমান বাংলাদেশ) ও পশ্চিম পাকিস্তান নিয়ে পাকিস্তান হয়। পাকিস্তানের জাতীর পিতা কায়দে আযম মোহম্মদ আলী জিন্নাহ। ১৯৭১ সালে আমি তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র। জাতীর পিতা কায়দে আযম মোহম্মদ আলী জিন্নাহ্র তৃতীয় শ্রেণীর পাঠ্যপুস্তকে জিন্নাহক্যাপ (টুপি) ছবি ছিল এবং তাঁর জীবনী ছিল। কায়দে আযম মোহম্মদ আলী জিন্নাহ মাত্র ১৬ বছর বয়সে ব্যারিস্টারি পাস করেন ইত্যাদি।
১৯৪৭ সালের ১৫ আগস্ট হিন্দুস্তান (ভারত বা ইন্ডিয়া) নামক রাষ্ট্রের জন্ম হয়। এ জন্য ১৪ আগস্টপাকিস্তান স্বাধীনতা দিবস পালন করে আর ভারত ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা দিবস পালন করে।
ভারতের জাতীর পিতা মোহন দাস করমচাঁদ গান্ধী। তাঁর মহান আত্মার জন্য তাকে মাহত্মা গান্ধী বলে ভারতবাসী সহ বিশ্বের সকলে তাঁকে মহত্মা গান্ধি হিসেবেই চিনে ও জানে। তিনি ব্যারিস্টারি পাস করেন। ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে ব্রিটিশদের এ দেশ থেকে তাড়াবার জন্য অসহযোগ আন্দোলন শুরু করেন। ভারতবাসী তাকে বাপু বলে ডাকত। বাপু শব্দের অর্থ পিতা। তিনি স্বাধীনতার পূর্বেই মানুষের মনে বাপু হিসেবে স্থান করে নিতে পেরেছিলেন।
১৯৪৭ সালের ১৪ আগস্ট পাকিস্তান নামক রাষ্ট্রের জন্মের পর থেকে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর এর আগ পর্যন্ত পূর্ব-পাকিস্তানের বাঙ্গালীদের প্রতি যে, নির্যাতন, নিপীড়ন, জুলুম করা হয়। বৈষম্য সৃষ্টি করা হয়। তা স্বল্প পরিসরে লেখে বুঝানো যাবে না। বাঙ্গালী জাতীকে পাকিস্তানের ২৪ বছরের গোলামীর হাত থেকে বাঁচাবার জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ তিনি এক ঐতিহাসিক ভাষণে অসহযোগ আন্দোলনের ডাক দিয়ে ঘোষণা করেন, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।” ঐ সংগ্রামের জন্য তিনি জনগণকে “যা কিছু আছে তাই নিয়ে” প্রস্তুত থাকতে বলেন। তিনি ২৬ মার্চ স্বাধীনতার ঘোষনা দেন ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর হাতে গ্রেফতার হন। নির্বাচিত গণপ্রতিনিধিরা ১০ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত করে গণ প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার গঠন করেন। তাঁরা স্বাধীনতার ঘোষণপত্র জারি করেন এবং বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করেন। ১৬ ডিসেম্বর বিজয় অর্জন হলে বাঙ্গালী জাতীর নয়নের মণি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পাকিস্তানের কারাগার থেকে মুক্তি লাভ করে ১০ জানুয়ারি বীরের বেশে স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করেন। বাঙ্গালির অবিসংবাদিত নেতা হিসেবে শেখ মুজিবুর রহমান জীবদ্দশায় কিংবদন্তী হয়ে ওঠেন।
বাঙ্গালী জাতীকে ২৪ বছরের গোলামী থেকে মুক্ত করেন, স্বাধীনতা অর্জন করেন। তিনি বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্রের স্থপতি। তাই তাকে বাংঙ্গালী জাতী বাংলাদেশের জাতীর পিতা হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। তিনি বাংলাদেশের জাতীর পিতা হিসাবে সারা বিশ্বে প্রতিষ্ঠিত। বহু বছর পূর্বে কখনও কখনও কেউ কেউ মাওলানা আব্দুল হামিদ খান ভাসানীকে জাতীর পিতা করা উচিৎত ছিল বলে বিতর্ক সৃষ্টি করার অপচেষ্টা করত।

লেখক-

জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ও শিক্ষক
কাঁটাবাড়ী, ফুলবাড়ী, দিনাজপুর
মোবাইলঃ ০১৭২২৬৭৩২৭৭

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *