শিরোনাম

13 Apr 2021 - 05:14:35 pm। লগিন

Default Ad Banner

করোনাভাইরাস: প্রবল সংক্রমণ আশঙ্কা নিয়েই সীমান্তে ২ হাজারের বেশি ভারতীয় আটকে

Published on Sunday, July 26, 2020 at 9:46 pm 82 Views

এমসি ডেস্ক : বাংলাদেশ থেকে নিজ দেশসে ফিরতে চেয়েও পারছেন না ২ হাজারের বেশি ভারতীয়। বেশিরভাগই পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। তাঁরা আটকে পড়েছেন। বিবিসি জানাচ্ছে এই খবর। করোনাভাইরাসের প্রবল সংক্রমণ ছড়িয়েছে। বাংলাদেশ সীমাম্তে আটকে পড়া হাজার হাজার ভারতীয়ের মধ্যে সেটি ছড়ানোর সম্ভাবনা বাড়ছেই।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই ভারতীয়রা মূলত পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা। তারা বাংলাদেশের দুটি সীমান্ত বাংলাবান্ধা ও বেনাপোলে আটকে রয়েছেন। বাংলাবান্ধা বাংলাদেশের পঞ্চগড় জেলায়। সীমান্তের ওপারে পশ্চিমবঙ্গে দার্জিলিং জেলা। আর বেনাপোল যশোর জেলায়। সীমান্তের অপর দিকে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা।

বিদেশমন্ত্রক কে উদ্ধৃত করে বিবিসি জানাচ্ছে, বেনাপোল এবং বাংলাবান্ধা এই দুটি সীমান্ত অঞ্চলেই প্রায় আড়াই হাজার ভারতীয় নাগরিক আটকিয়ে আছেন। ঢাকার সংবাদ মাধ্যমের খবর, আটকে পড়া মানুষের সংখ্যাটা আরও বেশি। আটকে পড়া ভারতীয়রা সীমান্ত এলাকায় কারোর কারোর বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন, বা কোথাও স্কুল বাড়ির বারান্দায় কোনওমতে থাকছেন। এদের মধ্যে অনেকে মহিলা।

জানা গিয়েছে, বিশেষ পারিবারিক প্রয়োজন এবং অসুস্থতার মতো কারণ ছাড়া স্থল সীমান্ত দিয়ে এখনও ভারতে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। আবার ঢাকা থেকে বিমানে করে বাংলাদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানোর যে ব্যবস্থা করেছিল দিল্লি, অর্থনৈতিক কারণে এরা সেই সুযোগও নিতে পারছেন না।

জানা গিয়েছে, ভারতের স্থলবন্দরগুলি দিয়ে এখনও নিয়মিত মানুষ চলাচল শুরু হয়নি, শুধু পণ্য আমদানি-রফতানি হচ্ছে। আবার ভারতে যেসব বাংলাদেশি নাগরিক আটকা পড়ে ছিলেন, তাদের নিজের দেশে ফিরে যেতে দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু ভারতে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।

গত ২৪ মে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের নির্দেশিকায় জানানো হয়েছিল, বিমানে যেসব ভারতীয় নাগরিক দেশে ফিরবেন, তাদের কী নিয়ম মেনে চলতে হবে। ওই নির্দেশিকাতেই লেখা আছে যে স্থল-সীমান্ত দিয়ে যারা আসবেন, তাদেরও একই নিয়ম মেনে আসতে হবে। নির্দেশিকা থাকা সত্ত্বেও কেন এই কয়েক হাজার ভারতীয় সীমান্ত এলাকাগুলিতে আটকে আছেন, সেটা স্পষ্ট নয়।

বাংলাবান্ধা ও বেনাপোল এই দুই বাংলাদেশি স্থলবন্দরে আটকে থাকার ফলে ভারতীয়রা অসহায়। ফুরিয়ে এসেছে টাকা। খাবার যোগাড় করতেও সমস্যা হচ্ছে। বিবিসি জানাচ্ছে, স্থানীয় বাংলাদেশিরা কোনওরকমে খাবারদাবার যোগান দিচ্ছেন আটকে পড়া ভারতীয়দের। এভাবে চালাতে পারা সম্ভব নয় তারাও জানেন। আর আটকে পড়া ভারতীয়রা জানেন না কবে সীমান্তের গেট খুলবে। কবে ফিরবেন নিজ দেশে।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *