03 Dec 2020 - 04:50:51 pm। লগিন

Luster IT

উন্নয়নের ধারা আরো এগিয়ে নিতে পৌর মেয়র হিসেবে জামিল হোসেন চলন্ত ওপরেই আস্থা পৌরবাসীর

Published on Wednesday, November 11, 2020 at 9:09 pm 46 Views

মোকছেদুল মমিন মোয়াজ্জেম : আসন্ন উপজেলা পৌর নির্বাচনে হাকিমপুর হিলি পৌর নির্বাচনে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা রয়েছে অনেক। সঠিক ও যোগ্য প্রার্থীকে পৌর নির্বাচনে জয়ী করে আবারো উন্নয়ন দেখতে চাই পৌরবাসী । পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি জামিল হোসেন চলন্তকে আবারো চাই সাধারন জনগণ। অপরদিকে ত‚ণমুল আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা বলছেন এ পৌর নির্বাচনে নৌকার মাঝি হিসাবে অন্য কাউকে নয় আবারো জামিল হোসেন চলন্ত দেখতে চান তারা। উন্নয়নের ধারা আরো এগিয়ে নিতে জামিল হোসেন চলন্ত বিকল্প নেই। তারা বলছেন নির্বাচনে জামিল হোসেন চলন্ত হাতেই নৌকা নিরাপদ। তাই মনোনয়ন প্রত্যাশী সবার থেকে এগিয়ে আছেন জামিল হোসেন চলন্ত । ছাত্র জীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত।
হাকিমপুর ডিগ্রি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।
রাজনীতিক সুদক্ষ নেতৃত্বের কারণে ২০০৬ সালে বাংলাদেশ কেন্দ্র ছাত্রলীগের সাবেক সহ সম্পাদক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক, হাকিমপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুগ্ন সম্পাদক, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি ও হাকিমপুর হিলি পৌর মেয়র নির্বাচিত হন। সাফল্যের সাথে কাজ করায় এলাকার মানুষের আস্থাভাজন হন জনপ্রিয় এই নেতা। তিনি পৌরবাসী আস্থা অর্জন করে। সেই সাথে হিলি পৌরসভার একটি মডেল হিসাবে রুপকার । মেয়র বলেন তিনি ২০১৫ সালে চতুর্থ পৌর নির্বাচনে অংশ নিয়ে নৌকা প্রতিকে প্রতিদ্ব›দ্বী সকল প্রার্থীর ভোটের
সমষ্টির চেয়ে বেশি ভোটে নির্বাচিত হন। পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেন সফলতার সাথে। অন্যায়ের প্রতিবাদী যুবক এবং সমাজ সেবক

হিসেবে তখন থেকেই জামিল হোসেন চলন্ত নাম ছড়িয়ে পড়ে এলাকাতে। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের প্রতি অবিচল আস্থা থাকা এবং রাজনৈতিক দুরদর্শিতার কারণে জামিল হোসেন চলন্ত সমাজের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। পৌর শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানে ইন্টারনেট সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার জন্য
ইন্টারনেট সংযোগ প্রদান করেন। বিভিন্ন শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানে স্কাউট দল গঠনে ড্রামসেট প্রদান করেন। লেখাপড়ার পাশাপাশি খেলাধুলা গুরুত্ব বুঝে শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানগুলোতে ক্রীড়া উপকরণ বিতরণ করেন। এছাড়া পৌর এলাকায় তিনি প্রায় প্রতিবন্ধি বয়স্ক ও বিধবা প্রায় আশি ভাগ পৌরবাসীকে উপহার পেয়েছে। তিনি হাকিমপুর উপজেলার নিজ উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল স্থাপন করেন। তিনি দরিদ্র জনগোষ্টির বিশুদ্ধ খাবার পানির সু-ব্যবস্থার জন্য পৌর এলাকায় প্রায় ৩০টি নলক‚প স্থাপন করেন। মেধাবী শিক্ষার্থীদের
জন্য নিজ উদ্যোগে বৃত্তির ব্যবস্থা করেছেন। যাতায়াতের সুবিধার জন্য পৌর সড়কগুলোকে পাকাকরণ করেন। সেই সাথে ধর্মীয় অনুষ্টান এবং প্রতিষ্ঠানগুলোতে নিজ অর্থায়নে সহযোগিতা করেন। এজন্য তিনি সাধারণ মানুষের মাঝে হয়ে উঠেছেন
জনপ্রিয়। সাধারন মানুষের প্রত্যাশা তার এ উন্নয়নের ধাকা অব্যহত রাখতে
আগামী ৫ম পৌরসভা নির্বাচনে তাকে আবারো চাই। পৌর এলাকার রিক্সা  চালক আজিজুল বলেন, আমরা দিনরাত নির্বিঘে্ চলাফেরা করতে পারি। শান্তিতে ঘুমাতে পারি। আমাদের বাড়ী ঘরে আর আগের মতো ভাংঙ্গা রাস্তা নাই। কোন সমস্যা নেই।
আমাদের এই রাস্তাঘাট পাকা করাই পৌর মেয়র কে ধন্যবাদ জানায় এবং আগামীতে আমরা এলাকাবাসী তাকেই চাই। পৌর ৫ নং ওর্ন্ডায়ে সুরুজ আলী বলেন, মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত ভাই আমাদের সুখে দুখে পাশে থাকেন। যে কোন সমস্যায় তাৎক্ষণিকভাবে সমাধানের চেষ্টা করেন। শুধু তাই নয় সরকারের উন্নয়ন বার্তা মানুষের কাছে পৌঁছে দেবার কাজটিও পৌরসভা চত্তরে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে করে চলেছেন তিনি।

রেলস্টেশনের এলাকার আতাউর রহমান কাজল বলেন, মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত গণমানুষের নেতা হিসাবে আমাদের কাছে পরিচিত। আমরা তার আহব্বানে জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকা প্রতিকে ভোট দিয়েছি। আমরা চাই আগামী পৌর নির্বাচনে
তাকে নৌকা প্রতিকে নির্বাচিত করতে। রাজধানী এলাকার মিজান কাটারী বলেন, চলন্ত ভাই দায়িত্ব পাওয়ার পর পৌরসভায় যে উন্নয়নেুর কাজ হয়েছে এ জন্য আবারো আমরা তাকেই চাই। এদিকে তৃণমুলের নেতৃবৃন্দের পাশাপাশি আওয়ামীলীগের স্থানীয় দলীয় নেতাকর্মীদেরও আস্থা রয়েছে তার উপরে। পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নাসিম আহম্মেদ টুকু বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার ইশতেহারে প্রতিটি
গ্রামকে শহরে রূপান্তরিত করতে চেয়েছেন। সে ক্ষেত্রে পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত হাকিমপুর হিলি শহর হিসাবে গড়ে তোলার জন্য একধাপ এগিয়ে গেছেন। আগামীতে তিনি দায়িত্ব পেলে জননেত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে পারবেন বলে আমরা মনে
করি। হাকিমপুর হিলি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে মাটি ও মানুষের নেতা এমপির নির্দেশে হাকিমপুর হিলি পৌর একটি সন্ত্রাস, পৌর গড়তে হবে আমি নিষ্টার সাথে কাজ করে যাচ্ছি। আগামীতে এই উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে চাই। জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মাটি ও মানুষের নেতা এমপি শিবলী সাদিক আমাকে যোগ্য মনে করলে অবশ্যই আমাকে নৌকা দিবেন। এবং সেটা আমি প্রত্যাশা করি। আসন্ন পৌর
নির্বাচনে জয়ী হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নের আমি অবশ্যই শরীক হবো। সাথে সাথে হাকিমপুর হিলি পৌরসভাকে আধুনিক গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়নে অন্যতম ভ‚মিকা থাকবে আমার।

Default Ad Banner

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *